ঝুলনযাত্রা কি ? ঝুলন যাত্রা কেন পালন করা হয় ?

1

ঝুলনযাত্রা কি ? ঝুলন যাত্রা কেন পালন করা হয় ?

Table Of Content (toc)

ঝুলন যাত্রা 2022

আগামী ২১ শ্রাবণ ১৪২৯, ০৭ আগষ্ট ২০২২ ইং রবিবার ঝুলনযাত্রা আরম্ভ ও ২৫ শ্রাবণ, ১১ আগষ্ট ঝুলনযাত্রা সমাপ্তি

ঝুলন পূর্ণিমাকে শ্রাবণী পূর্ণিমাও বলা হয় । বৃন্দাবনে রাধা-কৃষ্ণকে কেন্দ্র করে দ্বাপরযুগে এই ঝুলন উৎসবের সূচনা হয়েছিল,তারপর থেকে যুগ যুগ ধরে এই পর্ব চলে আসছে । ভগবান শ্রীকৃষ্ণ কৃপা করে দ্বাপরযুগে এই পৃথিবীতে আবির্ভূত হয়েছিলেন এবং তার বয়ঃবৃদ্ধি সাথে সাথে বৃন্দাবন তথা নন্দালয়ে নানারকম লীলাসাধন করেছিলেন । বয়ঃসন্ধিতে কিশাের কৃষ্ণ ও রাধারানীর যে মাধুর্যপূর্ণ প্রেমের পরিপূর্ণ প্রকাশ বৃন্দাবনে স্থাপিত হয়েছিল তারই লীলা স্বরূপা এই ঝুলনযাত্রা ।

আরো জানুনঃ নমস্কার কেন করা হয় ?

রাধাকৃষ্ণ বৃন্দাবনের কুঞ্জবনে বিশুদ্ধ প্রেমের আদানপ্রদানের মাধ্যমে এই জীবজগতে প্রথম প্রেমের প্রকাশ ঘটিয়েছিলেন । সেই লীলার নানারূপই এই ঝুলন যাত্রায় ভক্ত-কুলের সামনে পরিবেশিত হয় । রাধাকৃষ্ণের মূর্তি ঝুলনায় স্থাপন করে পূর্ব থেকে পশ্চিম দিকে ঝুলানাে হয় । এখানে শ্রীকৃষ্ণ হচ্ছেন প্রকৃতি আর রাধারানী হলেন তার পরম ভক্তস্বরূপিনী । সূর্য হলেন পৃথিবীর সমস্ত শক্তির উৎস,পূর্ব দিকে উদয় ও পশ্চিম দিকে অস্ত যায় । এই উদয়অস্ত-এর দিক স্বরূপ পূর্ব দিক থেকে পশ্চিম দিকে রাধাকৃষ্ণকে ঝুলানাে হয়ে থাকে । রাধাকৃষ্ণের মূর্তিকে দোলনায় স্থাপন করে মূর্তিযুগলকে ঝুলানাে, পাঁচদিন তাদের নানারকম সাজে সাজানাে, প্রেমভক্তি , নামগান বৃন্দাবনে তাদের বিশুদ্ধ প্রেমপর্ব সমস্তকিছু ভক্তগনের সামনে ঝুলন যাত্রার মাধ্যমে পরিবেশন করা হয় । এককথায় রাধাকৃষ্ণের প্রেমলীলার পাঁচদিন ব্যাপী এই অনুষ্ঠান ঝুলন উৎসব নামে পরিচিত ।

ঝুলন যাত্রা পালন করার নিয়ম

ঝুলনযাত্রা শুরুর দিন সহজ কিছু উপায়ের মাধ্যমে মনের বাসনা পূর্ণ করুন ।

শ্রীকৃষ্ণের ভক্তদের জন্য ঝুলনযাত্রা একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ দিন । ভূলোকে রাধাকৃষ্ণের লীলা উৎসবই হল ঝুলনযাত্রা । শ্রীকৃষ্ণ পুজোর মাধ্যমে মানুষ শান্তি পেতে পারেন এবং মনের ইচ্ছা পূরণ করতে পারেন। ঝুলনযাত্রার দিন সঠিক নিয়মে রাধাকৃষ্ণের পূজা করে এবং সহজ কিছু উপায়ের মাধ্যমে অত্যন্ত শুভ ফল লাভ করতে পারবেন ।

পূজার নিয়ম

রাধাকৃষ্ণের যুগল মূর্তি বা ছবি প্রতিষ্ঠা করুন । সঙ্গে অবশ্যই গণেশের মূর্তি বা ছবি রাখবেন । প্রথমে গণেশের পূজা করবেন, তার পর রাধাকৃষ্ণের পূজা করবেন । যথাসাধ্য মিষ্টান্ন নিবেদন করুন এবং হলুদ রঙের ফুল ও ফল অর্পণ করুন । একটা কথা বিশেষ করে মনে রাখতে হবে, এই পুজোর স্থানটি যেন খুব শান্ত হয় ।

এখানেঃ স্বপ্নে কি দেখলে কি ফলাফল লাভ হয়!

সহজ কিছু উপায়

• এই দিন রাধাকৃষ্ণকে হলুদ বস্ত্র দিয়ে সাজান ।

• এই দিন শ্রীকৃষ্ণের মন্দিরে ময়ূরের পালক ও মুকুট দান করুন ।

• এই দিন পুজোর সময় ঘিয়ের প্রদীপ অবশ্যই জ্বালতে হবে ।

• পুজো শেষে গীতা পাঠগায়ত্রীমন্ত্র জপতে হবে ।

• রাধাকৃষ্ণের চরণে তুলসীপাতা অর্পণ করতে হবে ।

• এই দিন দরিদ্রদের দান করতে হবে ।

• বাড়িতে নারায়ণ সেবার ব্যবস্থা করতে হবে ।

• পুজো হলুদ বস্ত্র পরে করতে হবে ।

• পুজোর জায়গায় এক টুকরো চন্দন রাখুন । এতে বাড়িতে শুভ শক্তি প্রবেশ করে ।

• এই দিন জল দান করলে জীবনে সুখ সমৃদ্ধি লাভ হয় ।

সকলকে ঝুলনযাত্রার অগ্রিম শুভেচ্ছা ❤️

Post a Comment

1 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.
Post a Comment
To Top