হিন্দুধর্ম এবং বেদ নিয়ে বিখ্যাত ব্যক্তিদের উক্তি

12


হিন্দুধর্ম নিয়ে উক্তি

Table of Content (toc)

হিন্দুধর্ম সম্পর্কে বিখ্যাত ব্যক্তিদের উক্তি


ডেভিড ফ্রাউলি

হিন্দু ধর্মের সৌন্দর্য হ'ল, এটি কোনও মনুষ্যনির্মিত ঐতিহাসিক ধর্ম নয় । এটি কোনও গির্জার, ত্রাণকর্তা ও ভাববাদীর উপর নির্ভর করে বা কোনও বিশ্বাস বা গোড়ামির প্রচার করে না; হিন্দু ধর্ম পৃথিবী এবং প্রকৃতি থেকে উত্থিত হয়, আমাদের অন্তর্নির্মিত হতে । এটি আমাদের মধ্যে সমগ্র মহাবিশ্বকে অভ্যন্তরীণ করতে দেয় ।

যখন পুরো বিশ্ব লেখাপড়া জানতো না, তখন ভারতের হিন্দুরা বেদ লিখেছিলেন ।

যখন পুরো বিশ্বে শিক্ষা চালু ছিল না তখন ভারতের হিন্দুদের গুরুকুলের মাধ্যমে শিক্ষা দেওয়া হতো ! 


এ পিজে আব্দুল কালাম

বেদ মানবসভ্যতার প্রাচীনতম ক্ল্যাসিক, ভারতবর্ষের সবচেয়ে মূল্যবান সম্পদ । সমগ্র ভারতের আত্মা এই বেদেই প্রোথিত । 

ড. জন লি মি

মুল্যবান রত্নগুলো অনন্ত নয় । আদিকালের লোকেরা স্বর্ণ, রৌপ্য, হীরক, স্থাপত্য ব্যবহার করতো নিজেদের অমর করে রাখার জন্য । আর্যগণ সে পথে যাননি, তারা রেখে গেছেন সবচেয়ে বিশাল নিদর্শনটি, শব্দ । মিশরীয়রা অমরত্বের জন্য পিরামিড বানিয়েছিল, আজ তা মরু ঝড়ে ক্ষয়ে গেছে, স্থাপত্য ধ্বংসস্তুপে পরিনত হয়েছে, স্বর্ণ লুট হয়ে গেছে । কিন্তু আজও বেদ মানবসভ্যতার এক অনন্ত তরঙ্গের ন্যায় প্রবাহিত হয়ে চলেছে । 


গুই গুয়ালট

ঋগ্বেদ মানবতার সর্বোচ্চ পথের সর্বশ্রেষ্ঠ প্রদর্শক । 


ভলতেয়ার

বেদ হলো মানবসভ্যতার সবচেয়ে মূল্যবান উপহার যার জন্য পাশ্চাত্য সবসময় প্রাচ্যের নিকট কৃতজ্ঞ থাকবে । 

মরিস ফিলিপ (দ্য টিসিং অব বেদ)

নিঃসন্দেহে ঋগ্বেদ মানবসভ্যতার সর্বোচ্চ গরিমাময় রাজপথ । 


ডব্লিউ বি ব্রাউন

বেদ এমন একটি তত্ব যা একস্রষ্টার অস্তিত্ব ঘোষণা করে । এটি এমন একটি গ্রন্থ যাতে বিজ্ঞান ও ধর্মের মিলন ঘটেছে । 


আলফ্রেড রাসেল ওয়ালেস

এটা খুবই আশ্চর্যজনক যে বেদের ভাষা শৈলী এতই নিখুঁত ও সৌন্দর্যমণ্ডিত যে আধুনিক কালে আমাদের মিলটন, শেকসপিয়ার বা টেনিসনকেও এর থেকে কম মনে হয় । 

ফ্রেডরিক জন শেলজেল

সকল বুদ্ধিবৃত্তি, রাজনীতি, অর্থনীতি, সকল ধর্মের ধারা বেদ থেকেই প্রবাহিত । এমনকি অসামান্য গ্রীক সভ্যতাকেও এর কাছে হার মানতে হয়েছে । 


ইলা হুইলার উইলকক্স

বেদ শুধু অসাধারন জীবনদর্শনের জন্যই অবিস্মরণীয় নয় বরং অনবদ্য বিজ্ঞানের জন্যও বটে । বিদ্যুৎ, বিচ্ছুরণ, বিমানবিদ্যা সবই যেন বেদের ঋষিদের জানা ছিল । 


লুইস জ্যাকলিয়ট

আশ্চর্য........!

বুঝতে পারলাম যে, যত ঐশ্বরিক গ্রন্থের কথা শোনা যায় তাদের মধ্যে বেদই একমাত্র যার সকল ধারনা আধুনিক বিজ্ঞানের সাথে সংগতিপূর্ণ । একমাত্র এটিই জগতের ক্রমান্বয় উন্নতির পথ ঘোষণা করে । 


আলবার্ট আইনস্টাইন

আমরা আর্যদের প্রতি কৃতজ্ঞ যে তারা সংখ্যা আবিষ্কার করেছেন । যা ছাড়া বিজ্ঞানের কোন আবিষ্কারই সম্ভবপর হতো না । 

আর্থার এন্টনি ম্যাকডোনাল

এই পর্যন্ত বেদ এত যত্নের সাথে সংরক্ষিত হয়েছে যে আর কোন গ্রন্থের সাথেই তার তুলনা দেওয়া যায় না । এরকম পরিবর্তীত হবার ক্ষীণতম সম্ভাবনা পর্যন্ত না থাকা মানব ইতিহাসের একমাত্র দৃষ্টান্ত । 


হেনরি ডেভিড থরো

যখন আমি বেদ পড়ি তখন এক অপ্রাকৃত আলোক যেন আমায় আলোকিত করে । এটি এমন একটি গ্রন্থ যাতে কোন বিভেদ নেই । এটি সকল দেশ, সকল জাতি, সকল কালের জন্য যেন জ্ঞান অর্জনের  এক রাজকীয় পথ ।


হিন্দুধর্ম নিয়ে বিখ্যাত ব্যক্তিদের উক্তি

আর্থার স্কোপেনহাইমার

বেদ হচ্ছে বিশ্বের সবচেয়ে ফলপ্রসূ এবং সবচেয়ে উঁচুমানের বই । যা সারা বিশ্বের সহায় হতে পারে । 


ম্যাক্স মুলার

পৃথিবীতে বেদ ও উপনিষদের মতো এতো প্রণোদনাপূর্ণ এত অতিমানবীয় গ্রন্থ আর নেই । 


আর্থার হোমস

আধুনিক পদার্থবিজ্ঞানের মতোই হিন্দুরা মহাজাগতিক মহাবিশ্বকে একটি চক্রীয় প্রকৃতির বলে মনে করেছিল । শিবের নৃত্যের দ্বারা প্রকাশিত প্রতিটি কল্পের পরিনামও পরবর্তী যুগের সূচনা । 


অরউইন শ্রোডিঞ্জার

বেদান্ত শিখিয়েছেন যে চেতনা একক, সমস্ত ঘটনাই এক সার্বজনীন চেতনার উপর নির্ভরশীল এবং আত্মার কোন গুণ নেই । 


রবার্ট ওপেনহাইমার

এই শতাব্দীর পূর্ববর্তী সমস্ত শতাব্দীর তুলনায় বেদই সবচেয়ে সুযোগ্য দাবি করতে পারে । 


উইলিয়াম জেমস

বেদ হচ্ছে শল্যবিদ্যা, শারীরবিদ্যা, প্রকৌশল, গণিত, সঙ্গীত, সংস্কৃতি সকল কিছুর এক মিলিত সমাবেশ, যেন এক জীবন্ত বিশ্বকোষ । 


আচার্য জগদীশ চন্দ্র বোস

প্রকৃত হিন্দুধর্ম মানুষকে কর্মযোগী করিয়া তোলে, কল্পনাবিলাসী নহে ।


স্বামী বিবেকানন্দ

"বেদ হচ্ছে সকল সত্য জ্ঞানের উৎস । মহাকর্ষ শক্তি যেমন তা আবিস্কারের আগেও বিদ্যমান ছিল, তেমনি মানবজাতি যদি এটা ভুলেও যায় তারপরও এটা অপরিবর্তিতভাবে বিদ্যমান থাকবে । ঠিক তেমনি বেদ ।


লেখাটি ভালো লাগলে শেয়ার করে অন্যদেরকেও নিজ ধর্ম সম্পর্কে জানার সুযোগ করে দিন

Thanks for your response.


নমস্কার

Post a Comment

12 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.
  1. পোস্টটি আমার খুবই ভালো লেগেছে স্যার ।
    ধন্যবাদ

    ReplyDelete
  2. অসাধারন দাদা

    ReplyDelete
  3. অসংখ্য ধন্যবাদ

    ReplyDelete
  4. Apni prove Kore dilen ze Hindu dhormoi sobceye shrestho . Thank you dada

    ReplyDelete
  5. অনেক ভালো লাগল দাদা
    শেয়ার করলাম পোস্টটি

    ReplyDelete
  6. ধন্যবাদ, ইনফরমেশনগুলি সবার সামনে প্রকাশ করার জন্য🙏

    ReplyDelete
  7. AnonymousJuly 16, 2022

    Hare krishna ❤️

    ReplyDelete
Post a Comment
To Top