পূজা-পার্বণ বলতে কি বোঝায় । জানুন পূজা ও পার্বণের পার্থক্য

0

পূজা-পার্বণ বলতে কি বোঝায় । জানুন পূজা ও পার্বণের পার্থক্য

পূজা-পার্বণের ধারণা

পূজা

সাধারণ অর্থে পূজা বলতে প্রশংসা করা বা শ্রদ্ধা নিবেদন করাকে বােঝায় । কিন্তু হিন্দুধর্মে পূজা সাকার উপাসনার পদ্ধতি । এক্ষেত্রে দেব-দেবীর প্রশংসা বা শ্রদ্ধা করার জন্য তাঁদের সেবা, স্তুতি ও গুণকীর্তন করে প্রণাম করা হয় । নিবেদন করা হয় পুষ্প-পত্র , ধূপ-দীপ, জল, ফল ইত্যাদি নৈবেদ্য। জীবের মঙ্গলের জন্য প্রার্থনা করা হয় । একত্রে এ বিষয়গুলােকে পূজা বলে । পূজার আচরণগত দিক বলতে পূজা করার রীতি-নীতিকে বােঝানাে হয় । অর্থাৎ পূজা কীভাবে করতে হবে, কীভাবে প্রতিমা নির্মাণ করতে হবে, কীভাবে ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনা করতে হবে, কী কী উপাচারের প্রয়ােজন হবে ইত্যাদি বিষয় পূজার আচরণগত দিকের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট । দেশ ও অঞ্চল ভেদে পূজা পদ্ধতির ভিন্নতা রয়েছে । তবে পূজা করার মৌলিক দিকগুলাের মধ্যে কোনাে পার্থক্য নেই । আবাহন, অর্ঘ প্রদান, ধ্যান, পূজামন্ত্র, পুস্পাঞ্জলি, প্রার্থনা মন্ত্র, প্রণাম মন্ত্র ইত্যাদি । পূজার বিভিন্ন অঙ্গ । আমরা প্রতিদিনই পূজা করি । আবার প্রতি সপ্তাহ, প্রতি মাস বা বছরের বিশেষ বিশেষ সময়েও বিভিন্ন দেবদেবীর পূজার আয়ােজন করে থাকি । দেব-দেবী অনুসারে পূজা পদ্ধতি ও মন্ত্র ভিন্ন ভিন্ন হয়ে থাকে । তবে যে-কোনাে দেব-দেবীর পূজা করার ক্ষেত্রে কতগুলাে সাধারণ নিয়ম-নীতি অনুসরণ করতে হয় । এই নিয়ম-নীতিগুলােকে সাধারণভাবে পূজাবিধি বলে ।

পার্বণ

পার্বণ শব্দের অর্থ হলাে পর্ব বা উৎসব । উৎসব মানে আনন্দময় অনুষ্ঠান । পার্বণ বলতে আমরা বুঝি, যেসব পর্ব পূজা অনুষ্ঠানকে আনন্দময় করে তােলে । যেমন- প্রতিমা নির্মাণ, দেবতার ঘর সাজানাে, বিভিন্ন ধরনের বাদ্যের আয়ােজন, বিশেষ করে ঢাক, ঢােল, ঘণ্টা, করতাল, কাসি, শঙ্খ ইত্যাদি; ভক্তদের সাথে ভাব বিনিময়, কিছুটা বিচিত্রধর্মী খাওয়া-দাওয়া, বিভিন্ন ধরনের আনন্দমূলক অনুষ্ঠানের আয়ােজন, পরিচ্ছন্ন পােশাক-পরিচ্ছদ পরিধান ইত্যাদি ।

আরও পড়ুন :

হিন্দু ধর্মের বাণী

মহাভারতের রচনাকাল

হিন্দুধর্মের প্রথম মানব কে ?

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.
একটি মন্তব্য পোস্ট করুন (0)
To Top